Apps

Picture

করোনা দূরে ঠেলতে শরীয়তপুরের সকল থানা ও পুলিশ লাইন্সে ‘আপৎকালীন তাবু’

Picture

করোনা দূরে ঠেলতে শরীয়তপুরের সকল থানা ও পুলিশ লাইন্সে ‘আপৎকালীন তাবু’

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় নতুন নতুন উদ্যোগ নিচ্ছে পুলিশ বাহিনী। বিশেষ করে থানা, ব্যারাক বা পুলিশ লাইন্সে থাকা সদস্যরা যাতে ভাইরাসে আক্রান্ত না হন সে লক্ষ্যে ফোর্স ব্যবস্থাপনায় নেওয়া হয়েছে নতুন পদক্ষেপ। এরই অংশ হিসেবে শরীয়তপুরের সকল থানা এবং পুলিশ লাইন্সে বড় বড় তাবু টানানো হয়েছে। দায়িত্ব পালনের জন্য কোনো পুলিশ সদস্য থানা ও ব্যারাকের বাইরে বের হওয়ার সময় আগে ওই তাবুতে যাবেন। সিভিল ড্রেস বদলে তাবুর ভেতরে পরতে হবে ডিউটি পোশাক। এরপর দায়িত্ব পালন শেষে যখন আবার ব্যারাক বা থানায় ফিরবেন তখনও সবার আগে ঢুকতে হবে তাবুর ভেতরে। বাইরে ব্যবহার করে আসা পোশাক বদলে তাবু থেকে সরাসরি চলে যেতে হবে গোসলের জায়গায়। যে পোশাক পরে দায়িত্ব পালন করা হয়েছে তা ধোয়ার আগে নিজ কক্ষে নেওয়া যাবে না। প্রতিটি সদস্য গোসল শেষে এরপর যেতে পারবেন থানা বা ব্যারাকে নিজ নিজ বসবাসের জায়গায়। এক সঙ্গে যাতে পুলিশের অনেক সদস্যের মধ্যে করোনার ভাইরাস সংক্রমিত না হয় সেই লক্ষ্যে এমন আয়োজন সম্পন্ন করেন শরীয়তপুর জেলার পুলিশ সুপার জনাব এস. এম. আশরাফুজ্জামান।
এছাড়াও বর্তমান পরিস্থিতিতে ছোট ছোট ভাগে বিভক্ত হয়ে থানার ভেতরে ও বাইরে অন্যান্য দায়িত্ব পালনের নির্দেশ ও বাইরে দায়িত্ব পালনের সময় পুলিশের গাড়িতে ফ্ল্যাক্স এবং শরীরের তাপমাত্রা নির্নয়ের জন্য প্রত্যেক থানা ফাঁড়ীতে একটি করে ডিজিটাল থার্মোমিটার ও একটি করে ব্লাড প্রেসার মেশিন (বিপি মেশিন) কিনে দেন পুলিশ সুপার মহোদয়, যাতেকরে সকল পুলিশ সদস্যরা তাদের শরীরের তাপমাত্রা নির্নয় করতে পারে ও দায়িত্ব পালনকালে তারা কিছু সময় পরপর গাড়িতে বসেই চা ও গরম পানি খেতে পারেন। এছাড়া দৈনন্দিন খাবার তালিকায় শাক ও ভিটামিন সি সমৃদ্ধি খাবারের ব্যবস্থা করেন।

 
Copyright © 2020 Superintendent of police, Shariatpur. Developed by Momtaj Trading(Pvt.) Ltd.